Saturday , January 21 2017
Home / অপরাধ / এবার দেখা মিলল মানুষের মাংস তৈরীর কারখানা , অরতন্ত হৃদয় বিদারক (ভিডিওসহ)

এবার দেখা মিলল মানুষের মাংস তৈরীর কারখানা , অরতন্ত হৃদয় বিদারক (ভিডিওসহ)

বিশ্বের সবচেয়ে বড় ফাষ্টফুড চেইনশপ “ম্যাকডোনাল্ডস” যার প্রতিষ্ঠাতা রেমন্ড ক্রক। ম্যাকডোনাল্ডসে মাত্রাতিরিক্ত ফ্যাট ও কার্বোহাইড্রেডে কিংবা মেয়াদোত্তীর্ণ মাংস সরবরাহ করার অভিযোগ অনেক আগে থেকেই রয়েছে। এবার মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের একটি অঙ্গরাজ্য ওকলাহোমা‘র ম্যাকডোনাল্ডস মাংসের ফ্যাক্টরির ফ্রিজে ঘোড়া ও মানুষের মাংস পাওয়া যায়। পুলিশ দেখতে পায় ওই কারখানা থেকে ট্রাকে করে ম্যাকডোনাল্ডের বিভিন্ন রেস্টুরেন্টে যে মাংস সরবরাহ করা হচ্ছিল তাতেও মানুষের মাংস রয়েছে।ভিডিওটি একদম নিচে

যুক্তরাষ্ট্রের বিভিন্ন সংবাদ মাধ্যমের খবর অনুযায়ী, দেশটির প্রায় ৯০% রেস্টুরেন্টে মানুষের মাংস এবং ৬৫% রেস্টুরেন্টে ঘোড়ার মাংস পাওয়া গেছে। এ বিষয়ে এফবিআই এজেন্ট লয়েড হ্যারিসন হাজলার বলেন, সবচেয়ে ভয়ানক ব্যাপার হচ্ছে ম্যাকডোনাল্ডে শুধু প্রাপ্ত বয়স্কদেরই নয় শিশুদের মাংসও পাওয়া গেছে। যুক্তরাষ্ট্রের বিভিন্ন ফ্যাক্টরিতে যেসব মানুষের-মাংস পাওয়া গেছে এর বেশির ভাগই শিশু কিংবা কিশোর বয়সী মানুষের, এটা সত্যিই ভয়ংকর। তিনি আরো বলেন, এখন প্রশ্ন হলো ম্যাকডোনাল্ড তার ভোক্তাদের কত বছর ধরে মানুষের-মাংস খাওয়াচ্ছে? আর যে সব মানুষের-মাংস খাওয়াচ্ছে তাদের কোথা থেকে জোগাড় করছে তারা? বিশেষ করে কোথা থেকে শিশুদেরকে পায়? তাদেরকে যখন কারখানায় আনা হয়েছিল তখন কি বেঁচেছিল? প্রসঙ্গত, এর আগে একটি অডিও রেকর্ডে ম্যাকডোনাল্ডের একজন কর্মচারীর স্বীকারোক্তি দিয়েছেন যে, ম্যাকডোনাল্ডের বিফ হ্যামবার্গারে মানুষের- মাংস ব্যবহার করা হয়।

মানুষের মাংস দিয়ে রেস্টুরেন্টে খাবার পরিবেশন
যদিও সাম্প্রতিক সময়ে ম্যাকডোনাল্ডস কর্তৃপক্ষ অভিযোগটি সম্পূর্নভাবে অস্বীকার করেছে। তারা দাবী করেছে সারা বিশ্বে চেইন ফুড ফ্র্যাঞ্চাইসে তাদের অভাবনীয় সাফল্যে ঈর্ষান্বিত হয়ে একটি মহল অপপ্রচার চালাচ্ছে।

কিন্তু ম্যাকডোনাল্ডস কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে অভিযোগের রেশ কাটতে না কাটতেই সম্প্রতি নাইজেরিয়ার রেস্টুরেন্টে মানুষের মাংস দিয়ে খাবার পরিবেশন করার অভিযোগ তদন্ত করতে গিয়ে আইন শৃঙ্খলা রক্ষাকরী বাহিনী সরাসরি সেই রেস্টুরেন্টে অভিযান চালিয়ে মানুষের কাঁচা মাংস, হাড়গোড় উদ্ধার করে। সাথে সাথে সেই রেস্টুরেন্টের মালিককে গ্রেফতার করে এবং রেস্টুরেন্টটি স্থায়ীভাবে সিলগালা করে দেয়া হয়।ওই ঘটনায় মালিকসহ মোট ১১ জন কর্মকর্তা এবং কর্মচারীকে গ্রেফতার করা হয়। পুলিশ গিয়ে সেখানে মানুষের দুটি কাটা হাত দেখতে পায়। যেগুলো দিয়ে মাংস ছাড়ানো হচ্ছিলো। যুক্তরাজ্যের বিখ্যাত দৈনিক ইন্ডিপেন্ডেন্ট এ বিষয়ে একটি প্রতিবেদন করার পরে সারা বিশ্বে এই খবর ছড়িয়ে পরে।

About Monira Islam

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *